মঙ্গলবার, মে ২৪, ২০২২




দুমকী হাসপাতালের স্যালাইন ডাষ্টবিনে, কুড়িয়ে নিলো মানুষ

নিয়াজ মোর্শেদ,পটুয়াখালীঃ

পটুয়াখালী জেলার দুমকি উপজেলাতে ৩১ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের কয়েকশত খাবার স্যালাইন ডাষ্টবিনে ফেলে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার (২৩মে) দুপুরে এ স্যালাইনগুলো ফেলে দেয়ার পর সাধারন মানুষ কুড়িয়ে নিয়ে যায়।স্থানীয়দের অভিযোগ নার্সিং ইনচার্জ আয়শা মারজান এ স্যালাইনগুলো বিক্রি করতে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা দেখে ফেললে তিনি ডাষ্টবিনে ফেলে দেন। এসব স্যালাইনের মেয়াদ রয়েছে ২০২৫ সাল পর্যন্ত।হাসপাতালের এক রোগীর স্বজন ছকিনা বেগম জানান, তিনি গতকাল দুপুরে হাসপাতালে সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এসময় নার্সিং ইনচার্জ আয়শা মারজানকে একটি বড় ব্যাগে করে এসব স্যালাইন নিয়ে যেতে দেখেনে।অন্য মানুষজনও স্যালাইন নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি দেখে ফেললে তিনি স্যালাইনগুলো পার্শ্ববর্তী ডাষ্টবিলে ফেলে দেন বলে ছকিনা জানান।

দুমকি এলাকার বাসিন্দা পঞ্চাশোর্ধ্ব মোসলেম মিরা জানান, ডাষ্টবিনে হাজারো স্যালইন পরে থাকতে দেখে সেখান থেকে ১শ‘ স্যালাইন বাড়িতে নিয়ে গেছি। স্যালাইনের মেয়াদ দেখলাম ২০২৫ সাল পর্যন্ত রয়েছে, এজন্য একটু বেশি নিয়েছি।

অপর বাসিন্দা মিশু মিয়া জানান, হাসপাতালের সমানে দাঁড়িয়ে দেখি সবাই স্যালাইন কুড়িয়ে নিচ্ছে। তাই আমিও ৫০ পিস নিয়েছি।

এ বিষয়ে আয়শা মারজান জানান, তিনি এ ঘটনার সাথে জড়িত না। এ বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। কেউ তাদের ফাঁসাতে এ কান্ড ঘটাতে পারে বলে মনে করছেন তিনি।

দুমকি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মীর শহিদুল শাহিন জানান, ইতিমধ্যে স্যালাইনের বিষয়ে আয়শা মারজানকে শোকজ করা হয়েছে। এসব স্যালাইন কিভাবে ডাষ্টবিনে গেল বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 3 =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর