মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৯, ২০২২




সিদ্ধিরগঞ্জে কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শিশু শ্রমিককে মারধর

নিজস্ব প্রতিবেদক :

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে আর.কে স্পিনিং মিলসের ১৩ বছরের শিশু শ্রমিক কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শারিরিকভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে একই কারখানার লাইন ম্যান মোস্তফার বিরুদ্ধে ।

রবিবার (১৭ এপ্রিল) বিকালে বি-১৬৯ ঢাকেশ্বরী গোদনাইল এলাকার ওই কারখানায় এ ঘটনা ঘটে। এতে মারাত্মকভাবে আহত হয় ১৩ বছরের এক কিশোরী শ্রমিক সানজিদা আক্তার এ ঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অভিযোগ করে পুলিশী পদক্ষেপের বদলে মিমাংসার জন্য চাপ দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে কিশোরী শ্রমিক।

ভুক্তভোগীর অভিযোগে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই আর.কে স্পিনিং মিলসের লাইন ম্যান মোস্তফা সেই নারী শ্রমিক সানজিদা আক্তারকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। ঘটনার দিন তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে মেশিনের মধ্যে মাথা ধরে ধাক্কা দেয়। এছাড়াও শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাত করে। সে আঘাতে তিন ঘন্টা কারখানায় অজ্ঞান হযে পড়ে ছিল। পরে রক্ত মাখা কাপড় ধুয়ে আসতে বলে এবং বাসায় গিযে কাউকে না বলার জন্য নির্দেশ দেয়। তাছাড়া বাড়িতে বললে প্রাণে মেরে ফেলা হবে এমন হুমকি দিচ্ছে বলে থানায় অভিযোগ করেছে সানজিদা।

এ বিষয়ে তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মোখলেসুর রহমান জানান, আমরা অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে সত্যতা পাইনি। সে মালিকের সাথে খারাপ আচরণ করেছিল, তাই হয়তো বাকবিতন্ডা হযেছে। অপরদিকে কিশোরীকে মারধরে জখমে আঘাতপ্রাপ্ত, এ বিষয়ে জানতে চ্ইালে তিনি জানান, আমরা কথা বলেছি তার যা পাওনা দেনা আছে মালিক পক্ষ বুঝিয়ে দিবে।

তবে ঘটনার বিষয়ে জানতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মশিউর রহমানকে মুঠোফোনে কল করা হলে তিনি ওই সম্পর্কে কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে কারখানায় গিয়ে ভুক্তভোগীর সন্ধান করলে আরকে স্পিনিং মিলস লি. এর ইনচার্জ মোহাম্মদ আলী জানান, লাইন ম্যান মোস্তাফিজকে আমরা শাস্তি দিয়েছি। সে যা করেছে, ভুল করেছে। আমরা তার বিরুদ্ধে যা যা করার করবো।

নির্যাতনের শিকার ওই শিশুর প্রতিবেশীরা জানান, ওই মেয়ের সাথে যে ঘটনাটি ঘটেছে সেটা অত্যন্ত দুঃখজনক।যে এই জঘন্যতম কাজটি করেছে তার শাস্তি চাই আমরা।

এদিকে শ্রম আইন অনুযায়ী যে শিশুর বয়স ১৪ বছর পূর্ণ হয়নি, তাকে কারখানায় কাজ দেওয়া যাবে না। এ নিয়ে ৭০ ধারায় শিশুদের কাজের সময় সম্পর্কে বলা হয়েছে, ১৯৬৫ সালের কারখানা আইনের ২২ ধারা অনুযায়ী শিশুদের কাজে নিয়োগ নিষিদ্ধ।

উল্লেখ্য, শিশু আইন সাবালকত্ব প্রাপ্তির পূর্বপর্যন্ত সময়কালীন মানব সন্তানকে শিশু বলা হয়। জাতিসংঘ ঘোষিত শিশু অধিকার সনদে শিশুর বয়স ১৮ বছর ধরা হয়েছে। বাংলাদেশের সংবিধানে ১৬ বছরের নিচে ছেলে-মেয়েদেরকে শিশু ধরা হয়েছে কিন্তু ২০১১ সালের জাতীয় শিশু নীতি অনুযায়ী ১৮ বছরের নিচে কিশোর-কিশোরীকে শিশু হিসেবে গণ্য করা হয়। বাংলাদেশের কারখানা আইনে শিশুর বয়স ১৬ বছর এবং দোকান ও প্রতিষ্ঠান আইনে ১২ বছর ধরা হয়েছে। খনি আইনে ১৫ বছরের নিচে, চুক্তি আইনে ১৮ বছরের নিচে এবং শিশু (শ্রম নিবন্ধক) আইনে ১৫ বছরের কম বয়সের মানবসন্তানকে বোঝানো হয়েছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eighteen − two =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর