মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ২৮, ২০২১




নির্বাচন নিয়ে নতুন ফর্মুলা জানালেন জাকের পার্টির চেয়ারম্যান

নারায়ণগঞ্জ প্রতিদিন ডেস্ক:

নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা ও নিরপেক্ষ নির্বাচন প্রশ্নে অব্যাহত বিতর্ক নিরসনে প্রস্তাবনা তুলে ধরে জাকের পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তফা আমীর ফয়সল বলেছেন, নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা নিয়ে বিতর্ক চলতেই থাকবে। তাই এ অবস্থার উত্তরণে ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়ায় পরিবর্তন আনতে হবে।

সোমাবার বিকালে সিলেট আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে আয়োজিত সিলেট বিভাগীয় জাকের পার্টির ইসলামী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। প্রস্তাবনা হিসেবে মোস্তফা আমীর জানান, ‘প্রযুক্তির যুগে প্রযুক্তির প্রয়োগ করে ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া ও ফলাফল বিতর্কমুক্ত রাখতে হবে। এ লক্ষ্যে ভোটগ্রহণে ব্লক চেইন পদ্ধতির প্রয়োগ ঘটাতে হবে। একইসাথে রাজনৈতিক দলগুলোকে নিজ নিজ দলের সদস্য ও তালিকাভুক্ত ভোটারদের আইডি কার্ড, ছবি ও স্বাক্ষরসহ তালিকা নির্বাচন কমিশনে জমা দান করতে হবে, নির্বাচন কমিশন তা ডাটাবেজ তৈরি করে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে জনগণের জন্য উন্মুক্ত করে দেবে এবং নির্বাচনী ব্যয় সীমার বাধ্যবাধকতা তুলে দিতে হবে।’

তিনি দাবি করেন, ‘ব্লকচেইন পদ্ধতিতে ভোটদান প্রক্রিয়া প্রশ্নবিদ্ধ হবে না। ব্লকচেইন মূলত অর্থ লেনদেনের টেকনোলজি। এতে সমস্ত তথ্য উপাত্ত সুরক্ষিত থাকে। কোনো গরমিল সম্ভব নয়। ব্লকচেইন একমাত্র টেকনোলজি, যা হ্যাক করা যায় না কোনোভাবেই।’

এসময় তিনি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সদস্য এবং ভোটারদের ডাটাবেজ তৈরি প্রসঙ্গে বলেন, ‘রাজনৈতিক দলগুলো যদি নিজ নিজ দলের সদস্য ও ভোটারদের স্বাক্ষরযুক্ত তালিকার ডাটাবেজ তৈরি করে তা নির্বাচন কমিশনে জমা দেয় এবং এবং নির্বাচন কমিশন এ ডাটাবেজ মোবাইল অ্যাপ তৈরির মাধ্যমে তা সর্বস্তরের জনগণের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়, তাহলে রাজনৈতিক দলের ভোট সংখ্যা নিয়ে আগাম ধারণা তৈরি হয়ে যাবে। ভোটদানের পর ফলাফল নিয়ে বিতর্ক থাকবে না।’

জাকের পার্টি টাকা দিয়ে ভোট আকর্ষণকে সমর্থন করে না জানিয়ে মোস্তফা আমীর ফয়সল বলেন, ‘গোপনে সবাই বিপুল অঙ্কের টাকা নির্বাচনে ব্যয় করেন। ফলাফলকে প্রভাবিত করেন। ৭৩-এর আগে এমন ছিল না। মহান স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান যুক্তফ্রন্টের প্রার্থী হয়ে তৎকালীন সরকারদলীয় প্রার্থী ওয়াহিদুজ্জামানকে শোচনীয়ভাবে পরাজিত করেছিলেন। কোটি কোটি টাকা খরচ করেও ওয়াহিদুজ্জামান বঙ্গবন্ধুর সাথে পেরে উঠেননি। বঙ্গবন্ধু প্রেম প্রীতি ভালোবাসা দিয়ে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন। ফলে টাকা ও পেশিশক্তি প্রেম-প্রীতি ও ভালোবাসার কাছে পরাভূত হয়েছিল। সে ধারা আবার ফিরিয়ে আনতে হবে। যদি সে ধারা ফিরিয়ে আনা না যায়, তাহলে কখনই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে না।

জাকের পার্টির সিলেট বিভাগীয় সভাপতি আবুল খায়ের বাবুলের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন জাকের পার্টির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ড. সায়েম আমীর ফয়সল। এছাড়া সমাবেশে বক্তৃতা করেন জাকের পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব শামীম হায়দার।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

10 + six =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর