রবিবার, জুলাই ১৯, ২০২০




হুমায়ূন আহমেদের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিদিনঃ

হুমায়ূন আহমেদ ছিলেন একজন ঔপন্যাসিক, ছোটগল্পকার, নাট্যকার, গীতিকার, চিত্রনাট্যকার ও চলচ্চিত্র নির্মাতা। বিংশ শতাব্দীর জনপ্রিয় বাঙালি কথাসাহিত্যিকদের মধ্যে তিনি অন্যতম। তাঁকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা পরবর্তী অন্যতম শ্রেষ্ঠ লেখক বলে গণ্য করা হয়। বাংলা কথাসাহিত্যে তিনি সংলাপপ্রধান নতুন শৈলীর জনক। অন্যদিকে তিনি আধুনিক বাংলা কল্পকাহিনির পথিকৃৎ। নাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক হিসেবেও তিনি সমাদৃত।

আজ এই মহান লেখকের ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী। জনপ্রিয় এই লেখক ক্যান্সারে ভুগে ২০১২ সালের এই দিনে যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। হুমায়ূন আহমেদ ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনায় জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম ফয়েজুর রহমান ও মা আয়েশা ফয়েজ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময়ে তাঁর লেখালেখির সূচনা হয়। ১৯৭২ সালে প্রকাশিত হয় তাঁর প্রথম উপন্যাস ‘নন্দিত নরকে’। ১৯৭৪ সালে প্রকাশিত হয় দ্বিতীয় উপন্যাস ‘শঙ্খনীল কারাগার’। বই দুটি প্রকাশের পর জনপ্রিয় লেখক হিসেবে সমাদৃত হন তিনি। তিনি দীর্ঘ প্রায় পাঁচ দশক লেখালেখির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তাঁর লেখায় বাঙালি সমাজ ও জীবনধারার গল্প ভিন্ন আঙ্গিকে ফুটে উঠেছে। তিনি গল্প বলার এক নিজস্ব ভাষাভঙ্গি সৃষ্টি করেছিলেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধ নিয়েও বেশ কয়েকটি উপন্যাস লিখেছেন। নির্মাণ করেছেন নাটক ও চলচ্চিত্র।

হুমায়ূন আহমেদ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক ছিলেন। পরে যোগ দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। লেখালেখিকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করে শিক্ষকতা থেকে অবসর নেন তিনি। বাংলা সাহিত্যে অবদানের জন্য তিনি একুশে পদক, বাংলা একাডেমি পুরষ্কার, লেখক শিবির পুরস্কার, মাইকেল মধুসূদন পদকসহ অনেক পুরষ্কার লাভ করেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 + two =

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর